এক ধাক্কায় অনেকটাই কমল সোনার দাম,বাজারে হটাৎ প্রচুর ক্রেতা, রইলো বাজারে আজকের দাম!

সোনা বর্তমানে সর্বাধিক চাহিদা সম্পন্ন ধাতু। সোনার দামের উত্থান পতনের দিকে সাধারণ মধ্যবিত্তদের সবসময় নজর আটকে থাকে। হলুদ ধাতুর দাম কখনো কমছে, আবার কখনো হুড়মুড়িয়ে বাড়ছে। বর্তমানে মধ্যবিত্তের সাধ্যের মধ্যে কবে আসবে সোনা ও রুপোর দাম সেদিকেই তাকিয়ে সকলে। ভারতে মূলত সোনার দাম নির্ভর করে আন্তর্জাতিক বাজারের উপর। বর্তমানে সোনার দাম বাড়া কমা নিয়ে সকলেই নাজেহাল। গত এক সপ্তাহে সর্বনিম্ন হল সোনার দাম।

গয়না প্রেমীদের জন্য রয়েছে সুখবর। ২৪ ক্যারেট দশ গ্রাম পাকা সোনার দাম কমেছে ২০০ টাকা। আজ রবিবার সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ২৪ ক্যারেট ১০ গ্রাম পাকা সোনার দাম ৫২,২০০ টাকা (Gold Prices) হয়েছে। অন্যদিকে ২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম গয়না সোনার দাম দাঁড়িয়েছে ৪৭,৩০০ টাকায়। যা গত দিনের তুলনায় কম। এই দিন প্রতি কেজির উপর রুপো বাটের দাম হয়েছে ৫৫,৪০০ টাকা। এক কেজি খুচরো রুপোর দাম দাঁড়িয়েছে ৫৫,৫০০ টাকায়। এদিনের সোনা রুপোর দরে ধনী থেকে মধ্যবিত্ত সকলেরই চিন্তা কিছুটা কমল।

উল্লেখ্য ২০২০ সালে করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় সোনার দাম ঊর্ধ্বমুখী হতে হতে আগস্ট এর দ্বিতীয় সপ্তাহে ২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম গহনার সোনার দাম ৫৬,১৯১ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। যা সর্বোচ্চ এখনো অবধি। আজ রবিবার সপ্তাহের শেষদিনে ২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম গহনার সোনার দাম (৪৭,৩০০ টাকা) রেকর্ড দরের (৫৬,২০০ টাকা) থেকে ৮৯০০ টাকা কম রয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারের উত্থান পতন প্রভাব ফেলে সোনার দামে। করোনাকালে ২০২০ সালে সোনার দাম ছিল আকাশছোঁয়া। তখন ২২ ক্যারাট সোনার মূল্য ছিল ৫৬,২০০ টাকা যা এখনো পর্যন্ত রেকর্ড দর বলে ধরা হয়। তবে কিছুদিন আগে সোনার দাম বেড়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত রেকর্ড দরকে অতিক্রম করতে পারেনি। রেকর্ড দরের থেকে বর্তমানে ৬,৫০০ টাকা কমেছে। ফলে অনেকটাই স্বস্তিতে গ্রাহকরা।

আরো পড়ুন

ছবিটিতে প্রথমে কী দেখেছেন তার ওপর নির্ভর করছে আপনার ব্যক্তিত্ব

মা’নসিকতা যাচাইয়ের ব্যাপারে অনেক সময়ই উদাহরণ দেওয়া হয় গ্লাসের। গ্লাসে অর্ধেক পানি রেখে জানতে চাওয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *