কৃষকের রান্নাঘরে লুকিয়ে ছিল বড় আকারের কিং কোবরা, সাপুড়ে এসে অনেক কষ্টে উদ্ধার করল সাপটিকে। তুমুল ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন:আমরা সকলেই জানি সাপ একটি ভয়ঙ্কর প্রাণী। সাপের কামড়ে মানুষ মারা যায়। পৃথিবীতে এমন অনেক সাপ আছে যারা অত্যন্ত ভয়ংকর। তারা কোন প্রাণীকে ছাড় দেয়না। সকল প্রাণীকে ছোবলে সাথে মেরে ফেলে আবার পৃথিবীতে এমন কিছু সাপ আছে যারা শান্ত স্বভাবের। বড় অজগর সাপ কে আমরা অ্যানাকন্ডা হিসেবে চিনে থাকি। অ্যানাকন্ডা সাপ আস্ত মানুষ গিলে ফেলতে পারে।

তবে ভেবে দেখুন আমাদের জন্য সাপ কতটা ভয়ঙ্কর।গ্রামের মানুষদের বসবাস করার ঘরে হরহামেশাই গ্রামের ঘরে যে কোন জায়গায় লুকিয়ে পড়ে। বর্ষাকালে এই ধরনের সাপের উপদ্রব বেশি বেড়ে যায়। আর বর্ষার পানি যখন নেমে যায় তখন তারা গ্রামে বিভিন্ন ঘরে আশ্রয় নেয়। তারা গ্রামের ঘরগুলোতে লুকিয়ে থাকে আর অযথাই মানুষকে ভয় দেখায়। বেশিরভাগ সময় রান্না ঘরের কোনায় এবং গোয়াল ঘরে থাকে।

নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যায় যে এই কোবরা সাপ রান্নাঘরে লুকিয়ে আছে। তারা যখন রান্নাঘরে ঢুকে দেখতে পেল তখন তারা তৎক্ষণাৎ খুব ভয় পেয়ে যায়। তখন তাদের মধ্যে থেকে একজন ব্যক্তি সাপুড়েদের খবর দেয়। তারা সাপ নিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তার জন্য সবাই তাদেরকে সহযোগিতা করেছিল। সাপুড়ে এসে দেখতে পায় সাপটি রান্না ঘরের এক কোনায় বসে আছে।

এরপর সাপুড়ে রান্নাগড়ে স্তুপ করে রাখা ইট গুলো সরিয়ে যখন সাপটিকে ধরার চেষ্টা করছিল। তখন সাপটি পালাবার চেষ্টা করছিল। এবং যে বারবার রেগে যাচ্ছে এবং ফণা তুলতে ছিল। একপর্যায়ে সাপুড়ে সাপটি ধরতে সক্ষম হয় এবং রান্না ঘর থেকে বাহিরে বের করে নিয়ে আসে। সাপটি যখন উঠনে নিয়ে আসা হয় তখন সাপটি খুব রাগান্বিত অবস্থায় ছিল।বারবার সাপের ছোবল মারতে যাচ্ছে। সাপটি যতবারই ছোবল মারতে যায় যতবারই ব্যর্থ হয়ে পড়ে।

এভাবে একপর্যায়ে সাপুড়ে সাপটিকে শান্ত করতে সক্ষম হয়। কোন সাপ কে শান্ত করা সহজ ব্যাপার নয় কিন্তু যারা সাপের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা থাকে তারাই সাপকে শান্ত করতে পারে। সাপকে শান্ত করতে হলে কিছু বৈশিষ্ট্য জেনে রাখা অত্যাবশ্যকীয়। আপনারা বাড়িতে এ ধরনের সাপ দেখে নিজেরা কিছু করতে যাবেন না। তাহলে এই বিপদ আরো বাড়তে পারে।

কারণ আপনাদের সাপুড়েদের মতো সাপকে শান্ত করার কোন প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞান নেই।তাই আপনাদের এসব থেকে দূরে থাকা ভালো। সাপুড়ে যে সাপটি ধরেছিল সেই সাপের দৈর্ঘ্য হবে প্রায় চার থেকে পাঁচ ফুটের সাপটি একটি স্ত্রী লিঙ্গের সাপ এবং এই সাপের পেটে ডিম ছিল। এই সাপের মধ্যে ট্যাক্সিটা এসিড পাওয়া যায়। বৃষ্টি চলে যাওয়ার পরে এই সাপটি আশ্রয়ের জন্য একটি আশ্রয় স্থল খুজছিল। সাপকে মানুষ বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন নামে চিনে থাকে।

ইংরেজিতে এ ধরনের সাপ কোবরা বলা হয়, কেউ কেউ এ সাপকে সেটার বলে থাকে এবং ভারতের বিহারেরসাপের গেম বলে।একেক অঞ্চলের মানুষ একেক ভাবে এই সাপকে একেক নামে ডেকে থাকে। তবে সচরাচর আমরা এই সাপকে কোবরা সাপ বলে চিনি থাকি। আপনারা এ ধরনের কোবরা সাপ থেকে বিরত থাকবেন। কোবরা সাপ গুলো একটু ভয়ঙ্কর বেশি হয়। গ্রামের মানুষ এদেরকে নাগ নাগিন বলে থাকে। তাই এগুলো বেশিরভাগ অল্পতেই রেগে যায়।

সাপ দেখে সাপুরেদের খবর দিবেন এবং তাদেরকে সাপ ধরার ব্যাপারে সাহায্য করবেন।এরপর সাপুড়ে সাপটিকে ভালোভাবে বাক্সে বন্ধ করে নিয়ে। সাপুরে সাপকে দূরের কোন জঙ্গলে ছেড়ে আসে।তবে তাদের কোন ক্ষতি করা যাবে না। কারণ প্রত্যেক প্রাণীর একটি দেশের সম্পদ। কোনোভাবেই দেশের সম্পদ কেউ নষ্ট করা উচিত নয়।

আপনাদের যদি এ ধরনের সাপের ছোবল খান তাহলে আপনারা অতিসত্বর চিকিৎসা নেওয়ার চেষ্টা করবেন কারণ চিকিৎসা না নিলে আপনার প্রাণহানি হতে পারে। আপনার যদি কোন সাধারণ কোন সাপ কামড় দেয় তাহলে আপনি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী একটি ইনজেকশন নিতে পারেন প্রয়োজনে স্যালাইন গ্রহণ করতে পারেন। আপনারা ভাইরাল হওয়া সাপের ভিডিও দেখতে চাইলে নিচের লিংকে যেতে পারেন।

আরো পড়ুন

বৃদ্ধ চাচার চায়না জালে ধরা পরল হাওরের অদ্ভুত ধরনের বড় বড় মাছ। এসব মূল্যবান মাছ ভাগ্য বদলে দিল বৃদ্ধ লোকটির, তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সেই আদিম যুগ থেকেই মানুষ জেলের কাজ করে আসছে। আদিম যুগে যখন মানুষ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *