ছোট শহরে অল্প পুঁজিতে ব্যবসার সেরা ৫ আইডিয়া!

শহরে বসবাস করে থাকেন তারা অনেকে চান যে শহরে ব্যবসা করতে। গ্রামাঞ্চলে ব্যবসা করা টা যতটা কঠিন আপনি চাইলে সরাসরি শহরে এই ব্যবসা গুলি খুবই সহজে করতে পারবে। যারা শহরে থেকে ছোট ব্যবসা করতে যান আজকের আর্টিকেলটি মূলত তাদের জন্য লেখা।

আপনারা চাইলে খুব সহজেই এই ছোট ব্যবসা গুলো আপনার ছোট শহরে করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে এ ব্যবসা গুলো খুবই লাভজনক এবং আপনারা খুবই সহজে এ ব্যবসা গুলো করতে পারবেন। শহরে ব্যবসার সেরা কয়েকটি আইডিয়া সম্পর্কে নিজে বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ

শহরের ব্যবসা আইডিয়া ১.মোবাইল রিচার্জের ব্যবসা: শহরে যারা ব্যবসা করতে চান অনেকে মোবাইল রিচার্জের ব্যবসাটিকে তাদের পেশা হিসেবে বেছে নিয়ে থাকেন। আপনি চাইলে ভালো একটি স্থানে মোবাইল রিচার্জের দোকান দেওয়ার মাধ্যমে ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

শহর গুলোতে মূলত অনেক দূর দূরান্ত থেকে লোকজন এসে থাকে এবং তাদের যোগাযোগের সময় প্রায় ক্ষেত্রেই মোবাইল রিচার্জ করার দরকার পড়ে। তাই তারা সামনে যে দোকানে পান সে দোকান থেকে রিচার্জ করে নেন। তাই আপনি যদি ভাল একটি স্থানে মোবাইল রিচার্জের দোকান দিতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি ভালভাবে এখান থেকে লাভ করতে পারবেন।

২.লন্ড্রির দোকান দিয়ে ব্যবসা: আপনি যদি ভালো একটি স্থান নির্বাচন করে ভালো একটি লন্ডনের দোকান দিতে পারেন তাহলে আপনি এখান থেকে অনায়াসেই ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। শহরের লোকেরা অনেকেই বেশি সৌখিন হয়ে থাকে। তাই তারা তাদের পোষাক আশাক গুলো কে একটু বেশি পরিপাটি রাখার চেষ্টা করে থাকে।

তাছাড়া তারা তাদের পোষাকগুলো যাতে তাদের গায়ের সাথে ফিট হয় সেজন্য তারা বিভিন্ন লন্ড্রির দোকানে গিয়ে সেগুলো ঠিক করতে দিয়ে আসে। তাই আপনি যদি একটি ভাল স্থানে লটারির দোকান দিতে পারেন তাহলে এখান থেকেও আপনি ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। শহরে ব্যবসার মধ্যে এই ব্যবসাটি দারুন একটি ছোট ব্যবসা।

৩.সুপারশপের দোকান দিয়ে ব্যবসা: সুপারশপের দোকান দিয়ে ব্যবসাটি শহরে খুবই জনপ্রিয় ব্যবসা। আপনারা চাইলেই ভালো একটি স্থানে এই সুপারশপের দোকানটি দিতে পারেন এবং সেখান থেকে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারেন। সুপারশপের ব্যবসাতে আপনি কতটা সফল হবেন সেটা অনেকাংশে নির্ভর করে থাকে আপনার ব্যবসা টেকনিকের উপর।

আপনি যদি ভাল একটি জনসংখ্যা পূর্ণ স্থানে ভালো ভালো প্রোডাক্ট নিয়ে আপনার দোকানটি চালাতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি এই দোকানের মাধ্যমে ভালো কিছু করতে পারবেন। বর্তমানে শহরে যত লাভজনক ব্যবসা রয়েছে তাদের মধ্যে সুপারশপের ব্যবসাটি খুবই জনপ্রিয় ব্যবসা। তাই ইচ্ছে করলে সুপারশপের ব্যবসাটি আপনারা শুরু করতে পারেন।

৪.মোবাইল রিপেয়ারিং দোকান দিয়ে ব্যবসা: আমাদের মোবাইলে কোন ধরনের সমস্যা হলে আমরা অনেকেই মোবাইল রিপেয়ারিং এর দোকানে যেয়ে থাকে। আপনি যদি এসব সম্বন্ধে খুবই ভালবেসে থাকেন তাহলে একটি ভালো স্থানে মোবাইল রিপেয়ারিং এর দোকান দিতে পারেন।আপনার হাতের কাজ যদি এই ক্ষেত্রে ভালো হয়ে থাকে তাহলে দেখবেন অনেক কাস্টমার আপনি কিছুদিনের মধ্যেই পেয়ে যাচ্ছেন।

আর যেসব কাস্টমার আপনার দোকান থেকে সার্ভিস নিয়ে তাদের মোবাইল গুলি ঠিক করছে তারাই পরবর্তীতে আপনার দোকানের জন্য কাস্টমার নিয়ে আসবে। আর যত কাস্টমার আপনার দোকানে আসবে আপনার ইনকাম তত বেশি হবে। তাই আপনি চাইলে উপযুক্ত একটি স্থান থেকে শহরে ব্যবসা করতে চাইলে মোবাইল রিপেয়ারিং এর দোকান দিতে পারেন।

৫.খাবার হোটেল দিয়ে ব্যবসা: শহরে কিন্তু অনেকে কাজের জন্য এসে থাকে। কিছু-কিছু মানুষ এতটাই ব্যস্ত থাকে যে তারা খাবার খাওয়ার মত পর্যাপ্ত সময় ও পায় না। তাই তারা অনেকে খাবার হোটেল গুলোতে ভিড় করে এবং সেখান থেকে খাবার খেয়ে থাকে। তাই আপনি যদি একটি ভাল স্থান দেখে খাবার হোটেল দিতে পারেন তাহলে আপনি এখান থেকে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার হোটেলের খাবারের যদি মানুষ খেয়ে পছন্দ করে থাকে তাহলে আপনার হোটেলের কাস্টমার সংখ্যা দিন দিন আরো অনেক বেড়ে যাবে। যার ফলে আপনার দোকানের ইনকামের পরিমাণটাও আরো বেড়ে যাবে। তাই আপনি যদি শহরে ব্যবসা করতে চান তাহলে খাবার হোটেল দেওয়ার মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। কেননা বর্তমান সময়ের যত লাভজনক ব্যবসা রয়েছে সেসব ব্যবসা গুলোর মধ্যে এই ব্যবসাটি অন্যতম।

আমাদের শেষ কথা: আশা করি যারা আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়েছেন তারা অবশ্যই শহরের ব্যবসা আইডিয়া সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনারা চাইলে ছোট শহরে এই ছোট ব্যবসা গুলো করার মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। পরবর্তীতে এই ব্যবসার মাধ্যমে ভালো কিছু করতে পারলে আপনারা ব্যবসাটিকে বৃহৎ আকারে করতে পারেন। তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

আরো পড়ুন

একাউন্টে ৫ হাজার জমা টাকা থাকলে অর্ধ লক্ষ টাকা লোন!

গ্রাহকদের জন্য ঋণসেবা চালু করলো পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড। এই সেবার নাম ‘পদ্মা প্রয়োজন’। এছাড়া গাড়ি-বাড়ি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.