জনপ্রিয় হিন্দি গানের সাথে নেচে মাতালেন সুন্দরী খুদে! মুহূর্তেই তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমানে সোশাল মিডিয়া একটি বড় গণমাধ্যমের রূপ নিয়েছে। প্রায় সকল ধরনের কাজ গুলোই আমরা এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারি। যা আমাদের আনন্দ দেয়, আবার অনেক সময় অবাক করে তোলে ,আবার কিছু ক্ষেত্রে আলোচনা ও সমালোচনার ও সৃষ্টি করে । অনেক প্রতিভার বহিঃপ্রকাশ ঘটে থাকে এই সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে । যা আমরা সচরাচর দেখতে পাই । যতই দিন যাচ্ছে এটি আরো বেশি পরিমাণে জনপ্রিয়তা লাভ করছে।

প্রতিভাকে তো আর আটকে রাখা যায় না , যার প্রতিভা আছে সেটা কোনো মাধ্যমে প্রকাশ হবেই । তবে বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া এই দিক টিকে আরো উন্মোচিত করেছে । এটি মুহূর্তের মধ্যে সারা বিশ্বের কাছে বিষয়টি তুলে ধরে যাতে করে সকলেই বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারছে । যা খুবই অল্প সময়ের মধ্যে ভাইরাল হচ্ছে এবং আলোচনা ও সমালোচনার জন্ম দিচ্ছে ।

অনেকে প্রশংসিত ও হচ্ছে এর মাধ্যমে । বর্তমান বিষয় গুলো পুরোটাই এই সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে উঠে আসে । যাতে সহজেই বিষয়টির ভালো – খারাপ দিক গুলোর পার্থক্য নির্ণয় করা যায়। সম্প্রতি কিছুদিন হলো সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি নাচ ভাইরাল হয়। ভাইরাল সেই নাচের সঙ্গে সেখানে দেখা যায় একটি কিশোরী মেয়ে একটি রাজস্থানি গানের সঙ্গে নেচে যাচ্ছে। মেয়েটা সুন্দর ও সাবলীলভাবে নেচে যাচ্ছে।

তার এ নাচটি কিছু সময়ের মধ্যে 1 মিলিয়ন ভিভ হয়েছে । একইসাথে নাচটি অনেক প্রশংসা ও কুড়িয়েছে । সকলেই ভালো ভালো কমেন্ট করে ও এই অল্প বয়সে এত সুন্দর নাচের জন্য বাহবা দিয়েছেন। সেখানে দেখা যায় কিশোরীর নাচ করছে এবং আশেপাশের গ্রামবাসীরা সেটি আনন্দের সাথে দেখছে ।

মেয়েটি গানের সাথে নেচে যাচ্ছে যা উপস্থিত সকলকে মুগ্ধ করছে । আরো অল্প বয়সী বাচ্চা রাও পিছনে দাড়িয়ে আনন্দের সাথে নাচটি উপভোগ করেছে। এতো অল্প বয়সে এতো সুন্দর নাচ ,যা অল্প সময়ের মধ্যে ভাইরাল হয় এবং সর্বস্তরের মানুষের থেকে প্রশংসা অর্জন করে যা মেয়েটির প্রতিভাকে জানান দেয়। সর্ব পরি প্রতিভা থাকলে তার বিকাশ অনিবার্য একই সাথে সেটা বিস্তারের মাধ্যম হলো এই সোশ্যাল মিডিয়া।

আরো পড়ুন

মানুষের মত রং ঢং করে সবাইকে মাতিয়ে রাখেন বানর ছানা, খেলছে বাচ্চার সাথে, ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়া আলোচনার বড় মাধ্যম । বর্তমানে সকল ধরনের নিউজ তথা চলমান কোন ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.