ডুবায় পড়ে থাকা জুপ জার টান দিতেই লংকা কান্ড, লুকিয়ে ছিল কৈ মাছের ঝাক, মূহুর্তেই বদলে গেল যুবকের ভাগ্য, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

গ্রাম্য পরিবেশে মাছ ধরতে কার না ভালো লাগে। যদি হাটতে গিয়ে মাছ পাওয়া যায় তখন সে ব্যাপারটা আরো অদ্ভুত হয়ে যায়। ঠিক এমনই ঘটনা ঘটে গ্রামের একটি কিশোরের সাথে দুবাই হাতে গিয়েই সে দেখতে পায় ছিল অনেক বড় বড় ঝাঁক। সেটি ভিডিও ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে দিলে এটি ইন্টারনেটের বদৌলতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল ভাবে ছড়িয়ে পড়ে। রাতারাতি সে ধারণকৃত ভিডিওটি হয়ে যায় ভাইরাল।

সকাল একটি কিশোর ডোবাতে হাঁটতে গিয়ে দেখতে পেলে এমন কাণ্ড। চোখকে বিশ্বাস করতে পারলো না যে সে কি দেখছে। সে ডোবার কাছে থাকা জুপ জারের আবরণকে কৌতূহলবশত টান দিতে দেখতে পেল এই অদ্ভুত কাণ্ড। সে জুপ জারের আবরণটি টান দিতে না দিতেই দেখতে পেল মাছ ঝাঁকে ঝাঁকে বের হচ্ছে। সেখানে মাছের অভাব নেই।

ঝাঁকে ঝাঁকে মাছ বের হচ্ছে। কাদার সাথে লেগে আছে হাজারো মাছ। সে অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইল। সে কিছু না ভেবে মাছগুলোকে ধরতে লাগলো। এত এত মাছ ছিল যে তার কাছে থাকা বাতিটিও সে মাছের কাছে কম পড়ে গেল। উপায়ন্তর না পেয়ে সে একটি বালতি নিয়ে আসলো সে আবার তার দেখা মাছগুলোকে ধরতে লাগলো।

জীবনে এত মাছ সে আগে কখনো দেখিনি। সে আবারও ঘাসের আবরণ তুলল সেখানেও সব দেখতে পেল তার দেখা আগের মত অদ্ভুত কান্ড। সেই অদ্ভুত কান্ড দেখে মহাখুশি। এতগুলো মাছ একসাথে দেখে তার সাথে থাকা বন্ধুটি তার ফোন দিয়ে এই দৃশ্যটি ধারণ করতে লাগল। সাথে সাথে তারা মাছগুলো কে ধরতে লাগলো।

তাদের কাছে এই বিষয়টি ছিল অভাবনীয়। নিজের চোখকেও তারা যেন বিশ্বাস করতে পারছিল না। তারা ভাবছে ঘাসের আবরণে মাঝে এতগুলো মাছ কোথা থেকে আসলো। এটি ছিল একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনা ভিডিও ধরনের মাধ্যমেই ইন্টারনেট থেকে এ খবরটি ছড়িয়ে পড়েছে।

আর এই ভিডিও মানুষের মনে ব্যাপক সারা ফেলেছে। মুহুর্তে মধ্যেই ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে পরেছে এই ভিডিও। এই রকম ভিডিও মানুষ আগে কখনো দেখে নি। যার কারনে সবাই খুব আগ্রহের সাথে এটি দেখছে।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুনঃ

আরো পড়ুন

বৃদ্ধ চাচার চায়না জালে ধরা পরল হাওরের অদ্ভুত ধরনের বড় বড় মাছ। এসব মূল্যবান মাছ ভাগ্য বদলে দিল বৃদ্ধ লোকটির, তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সেই আদিম যুগ থেকেই মানুষ জেলের কাজ করে আসছে। আদিম যুগে যখন মানুষ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *