ভাত খাওয়ার সময় পানি পানের অপকারিতা

পানির অপর নাম জীবন। তাই শরীর সুস্থ রাখতে পানি অপরিসীম। পানি শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বের করার সাথে সাথে শরীরে অক্সিজেনের জোগান দেওয়ার কাজ করে। যার কারণে প্রতিদিন বেশি পরিমাণ পানি পান করতে বলেন চিকিৎসকরা।

তবে পানির সব সুফল পেতে তা পান করতে হবে নিয়ম মেনে। তাছাড়া গ্লাসের পর গ্লাস পানি খেলেও মিলবে না সুফল। প্রাচীন চিকিৎসাশাস্ত্র মতে, ভুল পদ্ধতিতে পানি খেলে উল্টো কুপ্রভাব পড়তে পারে শরীরে। খাবার হজমে সমস্যা হতে পারে সে ক্ষেত্রে।

প্রথমত কোনও ভারি খাবার খাওয়ার মাঝে পানি পান নিষেধ করা হয়। এমনকি, খেতে বসার ঠিক আগে কিংবা খেয়ে উঠে সঙ্গে সঙ্গে পানি পানেও হতে পারে হজমের সমস্যা।

কারণ এ সময়ে শরীরে পানি ঢুকে গ্যাসট্রিক জ্যুসের সঙ্গে মিশে যেতে পারে। তার ফলে তার কাজের ক্ষমতা কমে গিয়ে খাবার হজম হতে বেশি সময় লাগতে পারে। তাই খুব তেষ্টা পেলেও হয় খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে পানি পান করুন, না হলে খাওয়ার আধ ঘণ্টা পর।

তবে খাওয়ার মাঝে খুব গলা শুকিয়ে গেলে দুই-এক চুমুক পানি পান করা যেতে পারে। এই সময়ে যদি হাল্কা উষ্ণ পানি খাওয়া যায়, তবে ভালো। হজমে সাহায্য করে উষ্ণ পানি; শরীরও বেশি আর্দ্র থাকে।

অন্য সময়ও একবারে ঢক ঢক করে পানি পান করলেও শরীরের ক্ষতি হতে পারে। পানি পান করতে হবে ধীরে ধীরে। এক এক ঢোক নিয়ে সাবধানে খেতে হবে। ফলে কোনও বোতল থেকে এক বারে ঢক ঢক করে পানি পান না করাই ভালো।

আরো পড়ুন

এক উপায়ে চাবি ছাড়াই তালা খুলুন

বাসায় এসে দেখছেন, দরজায় তালা ঝুলছে! পরিবারের অন্য সদস্যরা কোথায় গেছেন আপনি জানেন না। কিন্তু ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.