রাতে ভাত না রুটি, সুস্থ থাকতে কোনটা খাবেন? জে’নে নিন

কেউ বলবেন ভাত, তো কারও পছন্দের তালিকায় রয়েছে রুটি। ভাতের প্রতি বাঙালিদের অতিরি’ক্ত দু’র্বলতা সবার জা’না। রাতের খাবারেও ভাত খেতেই পছন্দ করেন বেশিরভাগ মানুষ। কিন্তু যারা স্বা’স্থ্য স’চেতন, তারা রাতের মেনু বদলে নিয়েছেন। আজকাল ভাতের বদলে রুটিতেই ভরসা রাখছেন অনেকে। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাতে ভাত-রুটি যাই খান না কেন কম পরিমাণে খাওয়া উচিত।

রাতে ভাত বেশি কেন নয়? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এক প্লেট ভাতে (প্রায় ৮০ গ্রাম) প্রায় ২৭২ ক্যালোরি থাকে। সন্ধ্যার পর কার্বোহাইড্রেট এড়িয়ে চলা উচিত। বিশেষ করে হাই ব্ল্যাড প্রেসার, ডায়াবেটিস, স্থুলতার স’মস্যা থাকলে তো মোটেই উচিত নয়। ঘুমানোর আগে কার্বোহাইড্রেট শ’রীরে গেলে গ্রোথ হরমোন এবং টেস্টোস্টেরন নেতিবাচক প্র’ভাব ফেলবে।

রাতে খুব বেশি ভাত খেলে ডায়াবেটিস, স্থুলতার মতো ক্রনিক রো’গের ঝুঁ’কি বাড়ে। ভাতে ফাইবারও কম থাকে। ফলে, হ’জমেরও স’মস্যা হতে পারে। রাতে বেশি রুটির ক্ষেত্রে স’মস্যা কোথায়? আটা বা ময়দা, যেকোনো ধ’রনের রুটিতেই কার্বোহাইড্রেট থাকে। ২০ থেকে ২৫ গ্রাম আটায় তৈরি একটা রুটিতে থাকে প্রায় ৭০ ক্যালোরি। এবার কয়টা রুটি খাচ্ছেন সেটি হিসেব করে দেখু’ন কতটুকু ক্যালোরি গ্রহণ করছেন।

একটি রুটিতে ১৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট থাকে।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দৈনিক পুষ্টির মাত্র ৪৫ থেকে ৬৫ শতাংশ কার্বোহাইড্রেট থেকে নেওয়া উচিত। তাই আটা-ময়দা বা ভাত অথবা দু’য়ে মিলিয়েই রাতে খেতে পারেন। তবে পরিমাণটা অবশ্যই বুঝে খেতে হবে। সূত্র: জিনিউজ

আরো পড়ুন

এক উপায়ে চাবি ছাড়াই তালা খুলুন

বাসায় এসে দেখছেন, দরজায় তালা ঝুলছে! পরিবারের অন্য সদস্যরা কোথায় গেছেন আপনি জানেন না। কিন্তু ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.