৩০ বছরের পরে সকলের এই ১৩ টি ভুল এড়িয়ে চলা প্রয়োজন

১. চাকরি পরিবর্তনে দোদুল্যমানতা : বর্তমান চাকরি ভালো বেতন দেয়, তাই চাকরি ছাড়া যাবে না―এমন চিন্তা অনেকের মনে আসন গেড়ে বসে। কিন্তু যে চাকরিতে তৃপ্তি আসে না এবং ভালো লাগে না তা ধরে রাখার কোনো মানে হয় না। যোগ্যতা থাকলে ঠিকই ভালো সুযোগ আসবে।

২. ঋণ : চাকরির প্রথমেই জীবনের নানা ঋণ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। নতুন ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রেও সতর্ক হতে হবে। ৩. মাসিক বিলে অনিয়ম : প্রতি মাসের বিল না দিলে সেবাদানকারীরা তা ভুল যান না, এটা মনে রাখতে হবে। তাই সব বিলের জন্য নির্দিষ্ট বাজেট রাখা উচিত।

৪. বাড়ি কেনা : বেতন বেড়েছে, তাই স্থায়ী ঠিকানার ব্যবস্থা করতে চান অনেকে। কিন্তু আর্থিকভাবে পুরোপুরি সক্ষম না হওয়া পর্যন্ত এমন বড় পদক্ষেপে যাওয়া ঠিক নয়। ৫. সঞ্চয়ে অনীহা : আপাতত সঞ্চয় না করলেও পরে তা পুষিয়ে নেওয়া যাবে―এমন মনে করাটা ভুল। প্রথম থেকেই অল্প অল্প সঞ্চয় করতে হবে।

৬. বিনিয়োগ থেকে দূরে থাকা : চাকরির পাশাপাশি যেকোনো লাভজনক বিনিয়োগে যুক্ত থাকা উচিত। কিন্তু এ কাজের সময় হয়নি মনে করে ভুল করবেন না। ৭. অন্যদের সঙ্গে তুলনা : একই বয়সী অন্যরা বেশি বেতন পান বলে নিজেকে ব্যর্থ বলে মনে করাটা ভুল। হয়তো আপনি বহু পরে চাকরিতে এসেছেন। অন্য কেউ আপনার চেয়ে বেশি বেতন পাচ্ছে মানে আপনি অযোগ্য নন।

৮. খাবারে অপরিমিতি : স্বাস্থ্য ভালো থাকলে অনেকেই ভেবে নেন―ছোটকালের মতো যা ইচ্ছা তাই খেতে পারব। কিন্তু না, বয়সের সঙ্গে খাবারের বাছবিচার করা অতি জরুরি। ৯. পোশাকে অগোছালপনা : ত্রিশ পেরিয়েও এলোমেলো পোশাক পরতে পারবেন, এমন ভেবে নেওয়াটা ঠিক নয়। কারণ বয়সের সঙ্গে পোশাকে রুচিশীল হওয়া ব্যক্তিত্বের লক্ষণ।

১০. অপরিকল্পিত সন্তান : সন্তান চাই, তাই এখনই নিতে হবে; পরিবারে নতুন অতিথির সুন্দর জীবনের ক্ষেত্রে আপনার ইচ্ছাটাই যথেষ্ট নয়। এর সঙ্গে আপনার সামর্থ্যের সমন্বয় করতে হবে। ১১. লাগামহীন আত্মবিশ্বাস : আত্মবিশ্বাস ভালো, কিন্তু নিজেকে অপ্রতিরোধ্য ভাবা ঠিক নয়। বিশেষ করে স্বাস্থ্য বিষয়ে তো নয়ই।

১২. কম দামের প্রতি ঝোঁক : কম দামের পণ্য কিনে অনেক অর্থ বাঁচানো যায় না। এটা সঞ্চয়ের আদর্শ পন্থা নয়। বরং এতে কম দামের খারাপ পণ্য দিয়ে ঘর ভরবে শুধু। ১৩. স্বেচ্ছাচারিতা : সব কিছু নিজের মতোই চলবে, তাই যা মন চায় তাই করতে হবে ভেবে নিয়ে বড় ভুল করবেন না। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। আর সব কিছু এমনিতেই ঠিক হয়ে যায় না। কাজেই অর্থ খরচের ক্ষেত্রে সংযমী হোন।

আরো পড়ুন

বিবাহিত পুরুষদের লিখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার অনুরোধ রইল!

মানুষকে নিজের প্রতি আকর্ষিত করার তেমন কোনো রুলবুক নেই। কারণ ভিন্ন মানুষ ভিন্ন ভাবনার হন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *