আফগানিস্তানে আরও ১০০০ সেনা মোতায়েনের নির্দেশ বাইডেনের…

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন ও মিত্র জোটের সেনা এবং মার্কিন দূতাবাসের কর্মীদের ফিরিয়ে আনার জন্য দেশটিতে সবমিলিয়ে পাঁচ হাজার সেনা মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এর পাশাপাশি যেসব আফগান নাগরিক মার্কিন সেনাদের বছরের পর বছর সহযোগিতা করেছে তাদেরকেও আফগানিস্তান থেকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়ার কাজে সহযোগিতা করবে এসব সেনা।

হোয়াইট হাউস থেকে শনিবার (১৪ আগস্ট) প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জো বাইডেন বলেন, তার দেশের কূটনৈতিক, সামরিক এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর পরামর্শের ভিত্তিতে তিনি আফগানিস্তানে নতুন করে এক হাজারসহ মোট পাঁচ হাজার সেনা মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছেন যাতে তারা আফগানিস্তান থেকে লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে আনার কাজে সহযোগিতা করতে পারে।

আফগান চলমান সংকটে প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনিকে সমর্থন দেয়ার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনকেও জো বাইডেন নির্দেশনা দিয়েছেন। আফগান সঙ্কটের রাজনৈতিক সমাধান চান বলে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ওই বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন। পাশাপাশি আঞ্চলিক গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সঙ্গে অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন কথা বলবেন বলে জো বাইডেন জানান। তবে আঞ্চলিক কোন দেশের সঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলোচনা করবেন সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলেন নি বাইডেন।

বিবৃতি শেষে জো বাইডেন আবারো প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন যে, তিনি হবেন আমেরিকার শেষ প্রেসিডেন্ট যিনি আফগানিস্তানে ২০ বছরের যুদ্ধের অবসান ঘটাবেন।

প্রাথমিকভাবে এই প্রত্যাহার কার্যক্রমে সহায়তার জন্য এক হাজার সেনা বরাদ্দ করা হয়। তবে মার্কিন প্রশাসনের কর্মকর্তারা এই পরিমাণ সৈন্য অপর্যাপ্ত বলে দাবি করেন। এরপর তালেবান বিদ্রোহীরা রাজধানীর উপকণ্ঠে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে মার্কিন দূতাবাসের কর্মীদের এবং আফগান মিত্রদের একটি এয়ারলিফ্ট সুরক্ষিত করতে তিন হাজার সেনার একটি দল কাবুলে পৌঁছায়। এরপর শনিবার অনুমোদিত অতিরিক্ত ১০ হাজার সৈন্যের সংখ্যা মোট পাঁচ হাজারে নামিয়ে আনে বাইডেন প্রশাসন।

আরো পড়ুন

শিকল পরিয়ে টেনে নেওয়া সেই বারদারই আফগানিস্তানের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট!

এগারো বছর আগে হাতে হাতকড়া পরিয়ে শিকল দিয়ে টেনে নেওয়া হচ্ছিল যাকে, সেই আব্দুল গনি ...