পরীমনিকে নিয়ে মুখ খুললেন ডিপজল

মাদক মামলায় গ্রেফতারের পর রিমান্ডে আছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। এ ঘটনায় তার শিল্পী সমিতির সদস্য পদ স্থগিত করা হয়েছে। এরপর পরীমনিকে নিয়ে বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কথা বলেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় খল অভিনেতা ও প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল। সোমবার কয়েকটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান ও ডিপজল।

এ সময় পরীমনিকাণ্ড নিয়ে ডিপজলকে সাংবাদিকরা জিজ্ঞেস করেন, এ অভিনেত্রীর অপরাধ এখনও তদন্তাধীন, রিমান্ডে আছেন তিনি। কিন্তু বলা হচ্ছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি পরীমনি পাশে দাঁড়ায়নি। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি? জবাবে ডিপজল বলেন, ‘দেখুন, আমরা কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নই। আমাদের শিল্পী সমিতি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।

আমরা সবাই মিলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, আইনের বিপক্ষে যাওয়া যাবে না। এখন দেখা যাক সামনে কি হয়। আইনকে পাশ কাটিয়ে পরীমনির বিষয়ে আমরা পক্ষে বা বিপক্ষে কোনো দিকেই জড়াতে চাই না। আইন পরীমনির বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত নেবে আমরা সেটা মেনে নেব।’

এরপর সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, পরীমনির এই ঘটনার পর চলচ্চিত্রাঙ্গনের আর কোনো শিল্পী এমন বিতর্কিত কাজে জড়িয়ে যাচ্ছে কি না , সে বিষয়ে বক্তব্য কি? ডিপজল বলেন, ‘সহকর্মীদের সাবধান করে দেওয়া হয়েছে যে, তারা যেন সুন্দরভাবে, ভালোভাবে চলে। বিতর্কিত পথ, খারাপ রাস্তায় জড়িত না হয়।’

এর আগে পরীমনির বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। তিনি বলেন, পরীমনির বিষয়ে এর আগের কাণ্ডে আমাদের বাজে অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমরা ওই ঘটনায় (বোট ক্লাব কাণ্ড) তার থেকে দুদিন সময় চেয়েছিলাম। কিন্তু পরীমনি আমাদের অপেক্ষা না করে নিজেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলেন।

সাংবাদিকদের ডেকে সংবাদসম্মেলন করলেন। শিল্পী সমিতি সবার পাশে আছে। বিপদে পড়া সবাই সমিতিকে পাশে পেয়েছে। জাভেদ ভাইয়ের অসুস্থতায় আমরা প্রধানমন্ত্রীর অনুদান এনে দিয়েছি। কোনো শিল্পী জেলে গেলেও তার জন্য কাজ করেছে। পরীমনির বেলায়ও আমরা তার পাশে থাকব, যদি তিনি চান।

আরো পড়ুন

পাত্র খুঁজে পাচ্ছেন না যে গ্রামের সুন্দরী নারীরা

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতিও ভিন্ন। একেক দেশের রীতি অন্য দেশের কাছে অদ্ভুত বা উদ্ভট বলে …