এই লোকটি 3 হাজারের বেশি অসহায় মেয়েকে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে বিয়ে দিয়েছেন, তিনি মেয়েদের বাবাদের থেকেও বেশি…

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজকের যুগে আমাদের দেশে এমন অনেক মানুষ বাস করেন যারা মেয়ের চেয়ে ছেলেকে বেশি ভালোবাসে। অনেক মানুষ আছে যাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নিলে তাদের খুব দুঃখ হয় কিন্তু আজকালকার যুগে ছেলে ও মেয়ে সমান বলে মনে করা হয় এবং মেয়েদেরকেও তাদের মা-বাবার সাথে অনেক ক্ষেত্রে সমান হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যদিও সময় পরিবর্তিত হয়েছে কিন্তু পরিবর্তিত সময়ের সাথে সাথে খুব কম মানুষই আছেন যারা নিজেদের মন পরিবর্তন করছেন,

কারণ মেয়েদের বিষয়ে বিয়ের যৌতুকের পরিমাণ খুব বেশি। মেয়ে জন্মের পর বাবা-মা তার বিয়ে নিয়ে দুশ্চিন্তা বেশি করে। মেয়ে বড় হওয়ার সাথে সাথে অনেক বাবা-মা বিয়ের যৌতুক দিতে অক্ষম কিন্তু বলা হয়ে থাকে যে প্রত্যেক মেয়ে তার ভাগ্যলেখা নিয়ে আসে তাই তার জন্ম নিয়ে আফসোস করা উচিত নয় কারণ সে তার ভাগ্যে যা আছে তাই পাবে। সুরাটের একজন ব্যবসায়ী মেয়েদের জন্য একজন দেবদূত হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন।

সুরাটে একজন ব্যবসায়ী প্রায় 3000 মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। সুরাটের যে ব্যবসায়ীর সম্পর্কে আমরা তথ্য দিতে যাচ্ছি তার নাম মহেশ ভাই সাবানি যিনি গত 9 বছর থেকে বিভিন্ন দুস্থ পরিবারের মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন। এই 9 বছরে তিনি 2866 জন অসহায় মেয়েদের কন্যাদান করেছেন এবং এখন এই বছর 31 জনের বিয়ের পরে বিবাহ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 3124। আসুন আমরা আপনাকে বলি যে, মহেশ ভাই এখনো পর্যন্ত অনেক কন্যা সন্তানের শিক্ষা,চিকিৎসা এবং প্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য আর্থিক সহায়তা করেছেন।

মহেশ ভাই বলেছেন যে,”তিনি দেশের প্রতিটি মেয়েকে সাহায্য করে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চান” এবং তিনি বলেন যে, “কন্যাদের কারোর জন্য বোঝা হওয়া উচিত নয়।” আসুন আমরা আপনাকে বলি যে এইবার যে গণবিবাহ হয়েছিল তার নাম লাডলি। আবর্জনা থেকে এক বছর আগে পাওয়া একটি নবজাতক শিশুর নামে এই বিয়েটি উৎসর্গ করা হয়েছে এবং এই বিয়েটির দ্বারা অনেকেই অনুপ্রাণিত হয়।

তিনি এই কাজের জন্য লাইসেন্স পেয়েছেন এবং এরপর তিনি যে কোন মেয়েকে দত্তক নিতে পারবেন এবং তাদের ভবিষ্যৎ সুন্দরভাবে গড়তে পারবেন। প্রকৃত অর্থে তিনি যেই মহৎ কাজ করছেন তা অবশ্যই প্রশংসনীয়।

আরো পড়ুন

একদম মানুষের মত দারুন ভাবে গান গাইছে শালিক পাখি, মানুষের সাথে বলছে নানান সব কথা, তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন: আদিকাল থেকেই বিভিন্ন প্রাণী মানুষের দাসত্ব গ্রহণ করে আসছে, মানুষ বিভিন্ন কায়দায় বিভিন্ন ...