তালেবানের বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ করা সেই আফগান নারী গভর্নর আটক

তালেবানের বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ করা আফগান নারী গভর্নর সালিমা মাজারি আটক হয়েছেন। আশরাফ গনি সরকারের শাসনকালে আফগানিস্তানের যে তিনজন নারী গর্ভনর ছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম তিনি।

একের পর এক প্রদেশ যখন বিনা বাধায় তালেবানের নিয়ন্ত্রণে চলে যাচ্ছিল, তখন বলখ প্রদেশ রক্ষায় সালিমা হাতে তুলে নিয়েছিলেন বন্দুক। দেশের অন্যান্য প্রদেশ বিনা যুদ্ধে নিয়ন্ত্রণ নিতে পারলেও বলখ প্রদেশে সালিমা বাহিনীর কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয় তালেবান যোদ্ধাদের। দু’পক্ষের তুমুল সংঘর্ষ হয় ঠিকই, কিন্তু তালেবানের বিপুল লোকবলের কাছে কুলিয়ে উঠতে পারেননি শেষ পর্যন্ত। বলখ প্রদেশের পতন হয়। একইসাথে সালিমার চাহার কিন্ট জেলারও নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেয় তালেবান। পরে তাকে বন্দী করা হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে।

খুব অল্প সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছেছিলেন সালিমা। নারীদের মধ্যে তার প্রভাব ছিল অনেকটাই। দেশের নিয়ন্ত্রণ নিতে তালেবান যখন এগিয়ে আসছিল তখন দেশের মানুষ এবং নারীদের নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন তিনি।
তিন বছর আগে গভর্নরের দায়িত্ব নিয়ে ৩০ হাজার মানুষের নিরাপত্তার দায়িত্ব একাই কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন সালিমা।

তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই চালানো তার কাছে নতুন কিছু নয়। সালিমা এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘নিজের দফতরের কাজও যেমন সামলেছি, পাশাপাশি যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হাতে বন্দুকও তুলে নিয়েছি।’

একজন আমলা হিসেবে শুধু প্রশাসনিক কাজ সামলানো নয়, পাশাপাশি সেনা অভিযানের বিষয়ও তাকে দেখাশোনা করতে হতো। সালিমা বলেছিলেন, ‘আমরা যদি সন্ত্রাসবাদী ভাবনাচিন্তা, সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে এখনই পদক্ষেপ না নিই, তাহলে তাদের হারানোর সুযোগ পাব না। আর সন্ত্রাসবাদীরা জিতলে গোটা দেশে তাদের ভাবনাচিন্তাকে ছড়িয়ে দেবে। দেশে একটা অস্থিরতা তৈরি হবে।’

আরো পড়ুন

সুপার ধামাকা! ১২ জুলাই থেকে তুমুল সস্তায় মাত্র কয়েক দিনের সোনার কেনার মেগা সুযোগ

এই দুর্দান্ত সুযোগ বারবার জীবনে আসেনা, যাঁরা বিনিয়োগ করতে চান তাঁদের কাছে এই মুহূর্তটি অত্যন্ত ...